logo

orangebd logo
২০১৯ বিশ্বকাপের মহড়া সেরে রাখল পাকিস্তান
সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

বহু দিন পর ফের একবার নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করলেন পাকিস্তান ক্রিকেটাররা। ১৯৯২ বিশ্বকাপের পর এই প্রথম আইসিসির ৫০ ওভারের কোন ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন হলো পাকিস্তান। ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জয়ের পর এবার ফের গোটা ক্রিকেটবিশ্বকে প্রমাণ করে দিল, এখনও আগের মতোই ক্ষুরধার পাকিস্তান। শুধু জেতাই নয়, পরবর্তী বিশ্বকাপের জন্য সরফরাজের নেতৃত্বে তরুণ দলটাকে প্রায় পাকা করে ফেলল পাকিস্তান। তবে, টুর্নামেন্টের শুরুটা মোটেও সুখকর ছিল না পাকিস্তানের জন্য। প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে হার মানতে হয় আমেরদের। ১২৪ রানে টিম ইন্ডিয়ার কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি অভিযানের শুরুতেই ধাক্কা খায় পাকিস্তান।

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা যখন মনে করছিলেন ভারতের কাছে হেরে গ্রুপ লীগ থেকেই বিদায় নিতে হবে পাকিস্তানকে, তখন হয়তো অলক্ষ্যে হাসছিলেন ক্রিকেট দেবতা। বিরাটদের কাছে হারের পর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রতিটি ম্যাচই নকআউট ছিল পাকিস্তানের জন্য। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মাস্ট উইন ম্যাচে প্রথমে র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা এবং পরে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় তরুণ দলটি। নকআউটে উঠে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি পাকিস্তানকে। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে মিনি বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠেন হাসান আলিরা। এরপরই আরও একবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের মুখোমুখি হয় পাকিস্তানকে। আইসিসি টুর্নামেন্টের ইতিহাস অনুযায়ী ফাইনাল ম্যাচেও আন্ডারডগ হিসেবেই নেমেছিলেন পাকিস্তান। বিভিন্ন মহল থেকে মেগা ফাইনালে এগিয়ে রাখা হয়েছিল ভারতকেই। এমনকি বাজির দরেও অনেক এগিয়ে ছিল কোহালিরা। কিন্তু অধিকাংশ ক্রিকেট বোদ্ধাদের ভুল প্রমাণ করে ১৮০ রানে টিম ইন্ডিয়াকে পর্যদুস্ত করে ট্রফি জেতে পাকিস্তান। গোটা টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের এই অসাধারণ কামব্যাকের পিছনে যারা বিশেষ অবদান রেখেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম ফখর জামান। ফখরের চওড়া ব্যাট চওড়া হাসি এনে দিয়েছে পাক সমর্থকদের মুখে। ফখর ছাড়াও বিশেষ করে উল্লেখ্য মোহাম্মদ আমির, হাসান আলি এবং জুনায়েদ খান। ফাইনালে কার্যত পাকিস্তানের পেসকে না সামলাতে পেরেই ভরাডুবি ঘটে টিম ইন্ডিয়ার। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতা এই পাকিস্তান দলে অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক এবং মোহাম্মদ হাফিজ থাকলেও নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ হয় এই দু'জনই। গোটা টুর্নামেন্টেই পাকিস্তানকে টেনেছে পাক তরুণ তুর্কিরাই। ফলে যদি এভাবেই আগামীদিনে পাকিস্তানের জার্সি গায়ে সফল হতে থাকেন মোহম্মদ আমের-হাসান আলিরা, তাহলে বলা যায় এই তরুণ দলটিই বাজি হতে চলেছে পাকিস্তানের, আসন্ন বিশ্বকাপের জন্য। ওয়েবসাইট।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close