logo

orangebd logo
ব্লু-ইকোনমির সম্ভাবনা কাজে লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার
নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

সরকার ব্লু-ইকোনমির সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পরিকল্পিতভাবে সব ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ। তিনি বলেন, গভীর সমুদ্রে মাছ ধরা জটিল। এজন্য সময়ের দরকার। সামগ্রিকভাবে ব্লু-ইকোনমির বিষয়ও সহজ নয়। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয় যৌথ ও এককভাবে কাজ শুরু করেছে।
গতকাল রাজধানীর তোপখানা রোডের সিরডাপ মিলনায়তনে ‘ব্লুু-ইকোনমি : বাংলাদেশ এবং বে-অব-বেঙ্গল রিজিওনাল কো-অপরেশন’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। কোস্টাল অ্যাসোসিয়েশন ফর স্যোসাল ট্রান্সফরমেশন ট্রাস্ট (সিওএএসটি) এ সেমিনার আয়োজন করে। জাতীয় সংসদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ নৌবাহনীর কমোডর মামুন চৌধুরী, শ্রীলঙ্কার হাইকমিশনার এইচ ই এম ইয়াসোজা গুনাসেকরা, বিআইএমএসটিইসি এর সেক্রেটারি জেনারেল এইচ ই এম সুমিথ নাকানডালা, ভুটান দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি (ট্রেড) এম. ডোমাং ও ইউএস এ্যাম্বাসির পাবলিক ডেপলোম্যাসি অফিসার এম. রেক্স মোসার। বিশেষজ্ঞ অতিথির বক্তব্য দেন, চিটাগাং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর শাহাদাত হোসেন ও সিপিআরডি’র এম শাসসুদ্দোহা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, হাতিয়ার দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক  মো. রফিকুল আলম, উন্নয়ন ধারার আমিনুর রসুল বাবুল, বাপা’র যুগ্ম সম্পাদক মিহির বিশ্বাস, এসএ টিভির সিনিয়র রিপোর্টার এম সালাউদ্দিন বাবু প্রমুখ। সেমিনারে কিনোট পেপার উপস্থান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর লাইলুফার ইয়াসমিন। মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন কোস্ট-এর নির্বাহী পরিচালক এম. রেজাউল করিম চৌধুরী।
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা সমুদ্র সীমানা নির্ধারণের যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা শেষ করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক গবেষণা ও অনুসন্ধানের মাধ্যমে সমুদ্র সম্পদ নিরুপণের পর আহরণ শুরু হবে। তিনি বলেন, অনুসন্ধানী জাহাজ আনা হয়েছে। তবে ১২ মাস অনুসন্ধান চালানোর সুযোগ নেই। ব্লু-ইকোনমির কাজ এমনভাবে করা হবে না। যাতে ভবিষ্যত প্রজন্ম বঞ্চিত হয়। ইলিশ মাছ হারিয়ে যেতে বসেছিল। সরকারের পরিকল্পিত কর্মসূচি বাস্তবায়নে তা ফিরে এসেছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন,  দেশে কাঁকড়া-কুচের চাষ শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে সরকার প্রকল্প নিয়েছে। ব্যক্তি উদ্যোগেও কাঁকড়া ও কুচে চাষ হচ্ছে। বড় বড় কোম্পানি সাতক্ষিরা ও খুলনায় ব্যাপকভাবে কাঁকড়া ও কুচের চাষ করছে।
সভাপতির বক্তব্যে ডা. দীপু মনি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে ব্লু-ইকোনোমির জন্য ২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। সঠিক রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের কারণেই দেশ আজ এই জায়গায় এসেছে। শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার আগে এদেশের ১০০ বছরের ইতিহাসে বিদ্যুৎ উৎপাদন হতো ১৬০০ মেগাওয়াট। আর শেখ হাসিনার সঠিক রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত ও পরিকল্পনায় এখন উৎপাদন হয় ১৫০০০ মেগাওয়াট। সঠিক রাজনৈতিক সিন্ধান্ত ও পরিকল্পনায় উপকূলে বনায়ন হয়েছে। সুন্দর বন সুরক্ষা হয়েছে। তিনি বলেন, ২০০৯ সালে কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর যে সক্ষমতা ছিল তা সবাই জানেন। সে সময় আর এই সময়ের সক্ষমতার মধ্যে আকাশ পাতাল তফাৎ। সরকার উন্নয়ন ও পরিবেশ সুরক্ষার ভারসাম্য বজায় রেখেই এগিয়ে যাচ্ছে। ইলিশ উৎপাদনের সাফল্যের কথা তুলে ধরে দীপু মনি বলেন, আগামী বছরে ইলিশ দেখার জন্য চাঁদপুরে আসুন।
 

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close