logo

orangebd logo
মনুষ্যসৃষ্ট দুর্যোগ

কতটা লাশের ভার বইতে পারবে বাংলাদেশ বোধহয় তার সক্ষমতার পরিমাপ চলছে! তিন পার্বত্য জেলার ঘটনাকে যখন প্রাকৃতিক দুর্ঘটনা বলে দায়সারা ভাবে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা হবে তখন আমি একে হত্যাকা- বলব। পাহাড় পৃথিবীর বহুদেশে রয়েছে, বিশ্ব মানচিত্রে এমন বহুদেশ আছে যেখানে শুধু পাহাড় আর পাহাড়; আর কিছু নাই। সেসব পাহাড়ের উচ্চতার সাথে বাংলাদেশের পাহাড়ের তুলনা করলে এখানের পাহাড়গুলো টিলার মর্যাদা পাবে। প্রকৃতির ধর্মই হচ্ছে পাহাড়ে বেশি বৃষ্টিপাত হবে। পার্বত্য জেলায় কয়েকদিন ভারি বৃষ্টিপাত হয়েছে আর তাতে পাহাড় ধসে শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছে- এ গল্প বিশ্বাস করার সুযোগ আপাতত নাই। কেননা বিশ্বের পাহাড় সর্বস্ব দেশগুলোতে যুগের পর যুগেও পাহাড় ধসে দেড়জন মানুষ নিহত হয়েছে এমন নজির বিরল। অথচ বাংলাদেশে? ২০১২ সালে পাহাড় ধসে নিহত হয়েছিল ৯০ জনের বেশি। গত ৯ বছরে নিহতের সংখ্যা ৫ শতাধিক। সর্বশেষ সোমবার মধ্যরাত থেকে পাহাড় ধসে যে সংখ্যক মানুষ নিহত হল তা বোধহয় বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

হবেই বা না কেন? এখানে যে ভূমিদস্যুদের রমরমা পাহাড় কাটার ব্যবসা আছে। প্রভাবশালীদের স্বার্থ আছে, রাষ্ট্রযন্ত্রের নিরব সমর্থন আছে। কাজেই পাহাড়ের পাদদেশের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাসকারীদের জীবন যে কতটা সস্তায় লাশের ভাগ্য বরণ করতে পারে, তার নিদর্শন তো দৃশ্যমান হলো। আশার কথা, নিহতের পরিবার ২৫০০০ টাকা এবং চালসহ আরও সাহায্য পাচ্ছে! লাশের সারিতে আরও লাশ যোগ হবে কিন্তু পাহাড় কাটার উৎসব বন্ধ হবে কিনা সে নিশ্চয়তা মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে পার্বত্য জেলায় বাসকারীরা কোনদিন পাবে কিনা তা নিশ্চিত হওয়ার সাধ্য বোধহয় সময়েরও নাই।

মাটি চাপায় যারা নিহত হলো তাদের প্রত্যেকেরই নুন আনতে পান্তা ফুরায় সামর্থ্য ছিল। বছরের পর বছর মৃত্যুর ঝুঁকি জেনেও তারা পাহাড়ের পাদদেশে বাস করত। এরা নিরুপায় এবং স্বার্থবাদীদের স্বার্থপর ঝাঁকুনির শিকার। এভাবে আর কত, কতদিন?

পাহাড় প্রকৃতির পেড়েক। এ আমাদের ভূমিকম্পের ধ্বংস থেকে রক্ষা করে। যারা পাহাড় কাটে এবং এ কাজে মৌন সমর্থন দেয় তারা উভয়ই রাষ্ট্র ও প্রকৃতির প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য শত্রু। রাষ্ট্র যদি এদের ?বিরুদ্ধে রুখে না দাঁড়ায় তবে লাশের ভারে নুব্জ্য হতে হবে দেশকে। কতটা লাশের ভার বইতে পারবে দেশ? পরোক্ষ হত্যার পর অর্থ সাহায্য ঘোষণা জীবনের সাথে টিটকারি বটে। অনাচার রোধ করতে না পারলে মানুষের মৃত্যুর যে মিছিল চারদিকে ছুটবে তার প্রত্যেকের জীবনের ক্ষতিপূরণ দেয়ার সামর্থ্য কি রাষ্ট্রের আছে? জীবনের বিনিময়ে টাকা-এ দিয়ে কোন শ্রাদ্ধ হবে? রাষ্ট্র একটু যত্নবান হও। মানুষ অন্তত নিরাপদে মৃত্যু কামনা করে। নিশ্চিন্তে মৃত্যুর গ্যারান্টি পাওয়ার অধিকারটুকু কি মানুষ পেতে পারে না?

রাজু আহমেদ।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close