logo

orangebd logo
হৃদরোগ হাসপাতালে এক করুণ অভিজ্ঞতা

এই সেদিন আমার বড় ভাই আকস্মিক অসুস্থ হয়ে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে তার দু'কন্যা পুরান ঢাকায় ন্যাশনাল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তৃপক্ষ সিট নেই বরে তাকে চিকিৎসাসেবা থেকে ফেরত দেন। পরবর্তীতে তাকে মিটফোর্ড হাসপাতালে নিলে একই কথায় তাকে ভর্তি করেননি। দ্রুত রোগীর অবস্থা অবনতি দেখে তাকে শেরে বাংলা নগরস্থ হৃদরোগ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ঠিকই কিন্তু সিট নেই বলে রুগীকে সারারাত মাটিতে শুইয়ে রাখা হয়। পরের দিন হাসপাতালের এক শ্রেণীর দালালদের সহযোগিতায় রুগীকে সিসিইউতে সিট দিয়ে রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

অবাক লাগে কে ডাক্তার কে ওয়ার্ড বয় চেনার কোন উপায় নেই। কারণ ডাক্তারদের কোন অ্যাপ্রোন দেখতে পেলাম না। পুরুষ-মহিলাদের জন্য কোন পৃথক সিসিইউ না থাকাটা লজ্জাকর। উপরে নীচে সিরিয়াস রুগীদের করুণ চিত্র ও অসহায়ত্ব দেখে আমি নিজেই অবাক। এই নাকি সরকারি হাসপাতাল। রুগীর স্বজনরা একের অধিক তার রুগীর অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে ডাক্তাররা কথা বলে না। হাসপাতালের ভিতরে শত শত ইঁদুর-বিড়ালের পদচারণা দেখে রুগী ও তাদের স্বজনরা ক্ষুব্ধ।

অপরিষ্কার ও অপরিচ্ছন্ন হৃদরোগ হাসপাতাল। ভিজিটর প্রবেশে কোন বাধা-ধরা নিয়ম-নীতি নেই। হাসপাতালে অহরহ মোবাইল ফোন, টাকা-পয়সা, ব্যাগ ইত্যাদি চুরি যায়। এর কোন প্রতিকার নেই।

রুগীরা ডাক্তারের জন্য অসহায়ের মত তাকিয়ে থাকে। দেখতে পেলাম হাসপাতালে প্রয়োজনের তুলনায় ডাক্তার অনেক কম। হাসপাতালের চর্তুদিকে অস্থায়ী দোকান ও হকারদের দৌরাত্ম্যে এক শ্রেণীর রাজনৈতিক কর্মীদের রমরমা বাণিজ্য চলছে। হাসপাতালে নেই কোন সরকারি ওষুধ। ওষুধগুলো কোথায় যায় কেউই বলতে পারে না। তারপর রুগীদের মানসম্মত খাবারের ব্যবস্থা নেই। এই বিরাট হাসপাতালের চিকিৎসক সংকট লেগেই আছে।

উল্লেখ্য রাজধানীর সরকারি হাসপতালগুলোতে রোগী ভর্তি সমস্যা জটিল। বিশেষ করে হাসপাতালে বেডের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম। এতে করে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যে সকল রোগী ভর্তি করা হয় তাদেরকেও চিকিৎসার্থে হাসপাতালে রাখা সম্ভব হয়ে উঠে না। মূলত আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ নূ্যনতম চিকিৎসার সুযোগ থেকে বঞ্চিত। তার উপর বর্তমানে এ অবস্থা দেশবাসীকে আরো সংকটে ঠেলে দিয়েছে। এ জন্য দেশের সব হাসপাতালগুলোতে বেডের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি ছাড়াও নতুন নতুন হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন।

মাহবুবউদ্দিন চৌধুরী

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close