logo

orangebd logo
হঠাৎ বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় দুভ্রোগ
নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

কয়েক দিন ধরে হঠাৎ বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হচ্ছে রাজধানী ঢাকায়। গতকাল দুপুরে ঘণ্টাখানেক বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় আবারও ডুবে গেছে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক। এর আগে গত মঙ্গলবার একই অবস্থা তৈরি হয়েছিল ঢাকা মহানগরীতে। এতে ভাঙ্গাচোড়া সড়কে বৃষ্টি, জলাবদ্ধতা ও যানজটে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় নগরবাসীর। বৃষ্টি হলেই রাজধানীর রাস্তাঘাট ডুবে যাচ্ছে এটি একটি নিয়মে পরিণত হচ্ছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকেই। তবে সরকারের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বিষয়টি দেখেও না দেখার ভান করছে জানান সাধারণ মানুষ। ঢাকা ও চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনে কমিটি গঠন করেই মনে করা করা হচ্ছে তাদের কাজ শেষ। তাই বৃষ্টি হলে জলাবদ্ধতা হবে এজন্য রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে দমকলেরব্যবস্থা করার দাবি জানায় রাজধানীবাসী। সরেজমিন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে বৃষ্টি, জলাবদ্ধতা ও যানজটে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে নগরবাসীর। রাজধানীর প্রাণকেন্দ্র মতিঝিল, গুলিস্তান, পল্টন ও সচিবালয়সহ পুরো নগরীর বিভিন্ন সড়কে জলাবদ্ধতায় ভোগান্তিতে পড়ে নগরবাসী। দুপুর সাড়ে ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ঘণ্টাখানেক বৃষ্টিতে ডুবে যার রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক। বৃষ্টির পরে বিভিন্ন সড়কে তৈরি হয় জলাবদ্ধতা ও যানজট। এতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকে থাকতে হয় বিভিন্ন সড়কে। তাই বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা ও যানজটে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় বলে জানান যাত্রীরা। পল্টন মোড়ে জলাবদ্ধতার কারণে জিরো পয়েন্ট এলাকা, আব্দুল গণি রোড, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় তৈরি হয় প্রচ- যানজট। এর ফলে রাস্তার দুই পাশে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকে যানবাহনগুলো। রাস্তায় পানি থাকার কারণে গাড়ি থেকে নামাও যায়নি। যানজটের কারণে চরম বিড়ম্বনা পোহাতে হয়েছে বলে যাত্রীরা জানান। এদিকে বৃষ্টির কারণে গতকালও প্রশাসনের প্রাণকেন্দ্র সচিবালয় ও এর সামনে সড়ক আব্দুল গণি রোডে জলাবদ্ধতা হয়েছে। সচিবালয়ের ভেতরে জলাদ্ধতায় সড়কে তৈরী হয় হাঁটু পানি। সচিবালয় ভেতরের সড়কে পানি জমে থাকার কারণে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে বলে জানান কর্মকর্তা-কর্মচারী ও দর্শনার্থীরা।রাজধানীর পুরানা পল্টন এলাকায় কামরুল নামের এক যাত্রী বলেন, রাজধানীর সড়কের পানি যাওয়ার কোন ড্রেন নেই। কোন সড়কের মাঝখানে দিয়ে ড্রেন থাকলেও তা ময়লার কারণে বন্ধ হয়ে আছে। তাই অল্প বৃষ্টিতে এখন জলাবদ্ধতা তৈরি হচ্ছে। এতে ভোগান্তি পোহাচ্ছে সাধারণ মানুষ। মন্ত্রী-এমপি'রা গাড়ি যাতায়াত করে তাই সাধারণ মানুষের কষ্ট বুঝতে পারছে না। বৃষ্টির পর প্রায় দু'ঘণ্টা যানজটে আটকে থাকতে হয়েছে বলে জানান তিনি।মতিঝিল এলাকায় মনোয়ার নামের এক যাত্রী বলেন, বৃষ্টি হলেও এমন জলাবদ্ধতা আগে ছিল না। এখন মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে কিছুক্ষণ পর দেখা যাবে রাস্তায় হাঁটু পানি জমে গেছে। কারণ রাস্তার পাশে কোন ড্রেন নেই। পানি কিভাবে যাবে। সিটি করপোরেশন নতুন যে সড়কগুলো তৈরি করেছে এর অনেক সড়কের পাশে কোন ড্রেন রাখা হয়নি। তাই বৃষ্টি হলে পানি যাওয়ার পথ না থাকায় নিচু সড়কে জমা হচ্ছে। বৃষ্টি কমলে পানি কমেনি। ফার্মগেট থেকে মতিঝিল আসতে তার তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে জানান তিনি।গতকাল বৃষ্টির কারণে শাহবাগ থেকে কারওয়ানবাজার হয়ে ফার্মগেট সড়কে দেখা দেয় দীর্ঘ যানজট। গাড়ির জটলায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তায় আটকে থাকতে হয়েছে বলে যাত্রীরা জানান। গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে শুরু হওয়া বৃষ্টির কারণে জলাবদ্ধতায় কাকরাইল, শান্তিনগর ও মৌচাক সড়কের যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে বলে জানান অনেকেই।মৌচাক এলাকায় আনোয়ার হোসন নামের এক যাত্রী বলেন, একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে রাস্তায় যানজট আবার গণপরিবহনের কম থাকায় চলার পথে ভোগান্তির শেষ নেই। জলাবদ্ধতা ও রাস্তাঘাটে ভাঙ্গাচোরার কারণে এই এলাকা দিয়ে চলাচল খুবেই মুশকিল বলে জানান তিনি। এছাড়া সিএনজি চালকরা দ্বিগুণ ভাড়া চাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। তাই বৃষ্টি হলেই রিকশা ও সিএনজি চালকদের ঈদের দিন শুরু হয় বলে জানান তিনি।এদিকে বৃষ্টির কারণে আসাদগেট, মানিক মিয়া এভিনিউ এলাকাও যানজটের সৃষ্টি হয়েছে গতকাল। রাস্তায় পানি জমার কারণে এই যানজটের তৈরি হয়েছে বলে যাত্রীরা জানান। এছাড়া বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতায় মিরপুর এলাকার মানুষকে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে স্থানীয়রা জানান। শেওড়াপাড়া থেকে মিরপুর-১০ গোল চত্বর হয়ে অরিজিনাল ১০ পর্যন্ত রাস্তার উভয় পাশেই তৈরি হয়েছে জলাবদ্ধতা। কোথাও কোমর পানি, কোথাও আবার হাঁটু পানি। বৃষ্টির পানিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতায় পুরো মিরপুর এলাকায় তীব্র যানজট তৈরি হয়েছে স্থানীয়রা জানায়। রাস্তায় পানিতে আটকে অনেক গাড়ির ইঞ্জিন বিকল হয়ে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে। রাজধানীর অন্যান্য স্থানের মতো বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি, কাকলী, নৌবাহিনীর সদর দফতরের বিপরীত পাশের রাস্তায় দেখা দিয়েছে জলাবদ্ধতা। রাস্তার উভয় পাশেই পানি জমে তৈরি হয়েছে জলাবদ্ধতা। জলাবদ্ধতার কারণে তীব্র যানজট দেখা যায় ওই সড়কেও। যানজটের কারণে এমইএস থেকে মহাখালী ফ্লাইওভার পর্যন্ত রাস্তায় গাড়ি আটকে থাকতে দেখা গেছে। এতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে বলে যাত্রীরা জানান।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close