logo

orangebd logo
হানিফ ফ্লাইওভার
সিঁড়ি বন্ধ হলেও বন্ধ হয়নি বাস স্টপেজ
মাহমুদ আকাশ

যাত্রাবাড়ী-গুলিস্তান মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে অবৈধ সিঁড়ি আদালতের আদেশে বন্ধ হলেও বন্ধ হয়নি অবৈধ বাস স্টপেজ। গত শুক্রবারও যাত্রাবাড়ী পকেট স্টপেজসহ ফ্লাইওভারের উপরে বিভিন্ন স্টপেজে বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠা-নামানো হয়। আগে এসব যাত্রী ফ্লাইওভার থেকে নামার জন্য সিঁড়ি ব্যবহার করতো। এখন সিঁড়ি বন্ধ থাকায় এলোমেলেভাবে রাস্তা পাড় হয়ে ফ্লাইওভারে বিভিন্ন র‌্যাম্পে মুখ ব্যবহার করে উল্টো পথে নিচে নামতে দেখা যায়। এতে ফ্লাইওভার উপরে দুর্ঘটনার ঝুঁকি আরও বেড়ে যাচ্ছে বলে জানান যাত্রীরা। তবে ফ্লাইওভারের উপরে বাস না থামানো বিষয়ে আরও কড়াকড়ি করা হবে জানান ডিএসসিসি কর্তৃপক্ষ। এ ক্ষেত্রে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ ও ফ্লাইওভার কর্তৃপক্ষের আরও নজরদারি বাড়ানো বিষয়ে পরামর্শ দেয়া হবে জানান বলে ডিএসসিসি'র নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বেলাল।জানা গেছে, ফ্লাইওভারের ওপরে বাস স্টপেজের জন্য নির্ধারিত কোন জায়গা নেই। কিন্তু ফ্লাইওভার উপরে ৮-১০টি স্থানে বাস-বে তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া যাত্রীদের ফ্লাইওভারে ওঠা-নামার জন্য বিভিন্ন স্থানে সিঁড়ি তৈরি করা হয়েছিলো। গত সোমবার ফ্লাইওভারে বিভিন্ন পয়েন্টে সিঁিড় অপসারণের জন্য নির্দেশনা দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। এর আগে গত ৩১ মে হাইকোর্ট হানিফ ফ্লাইওভারের সিঁড়ি সরাতে দুই সপ্তাহ সময় দেন কর্তৃপক্ষকে। তবে আদালতের আদেশে ফ্লাইওভারের সিঁড়ি বন্ধ হলেও এখনও অবৈধ বাস স্টপেজ বন্ধ হয়নি বলে জানান যাত্রীরা।সরেজমিন ফ্লাইওভারের বিভিন্ন পয়েন্টে ঘুরে দেখা গেছে, গতকালও যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তাসহ বিভিন্ন স্থানে বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠা-নামানো হয়। এসব স্থানে বাস ছাড়াও হিউম্যান হলারে যাত্রীরা ওঠা-নামা করতে দেখা যায়। এর মধ্যে ফ্লাইওভারের শনিরআখড়া অংশের দ্বিতীয় টোলপ্লাজার আগেই যাত্রাবাড়ী পকেট, কুতুবখালীসহ বিভিন্ন নামের স্টপেজে বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠা-নামা করা হয়। রাস্তার দুই পাশেই এভাবে যাত্রী ওঠা-নামা করে। এতে গুলিস্তান বা পলাশীগামী যাত্রীরা একদিক দিয়ে বাসে উঠছেন। ফেরত আসা যাত্রীরা অপরদিকে নামছেন। এরপর ঝুঁকি নিয়ে দৌড়ে ফ্লাইওভারের ওপর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে যাচ্ছেন যাত্রীরা। এজন্য ডিভাইডারের মাঝে সামাস্য ফাঁকা জায়গাও রাখা হয়েছে। এছাড়া যাত্রাবাড়ীর চৌরাস্তা দুই পাশেই ফ্লাইওভারের উপরে যাত্রী ওঠা-নামা করে। এখানে যাত্রীরা আগে সিঁড়ি ব্যবহার করতো এখন তা বন্ধ থাকায় ডেমরা ও দোলাপাড়ারের দিকের ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের মুখ ব্যবহার করে উল্টোপথে নিচে নামতে দেখা যায়। রাজধানীর সুপার মার্কেটের আগে র‌্যাব-৩ অফিসের সামনে, সায়েদাবাদ জনপথ মোড়েসহ একাধিক স্থানে যাত্রী ওঠা-নামা করে বাস চালকরা। সিঁড়ি বন্ধ থাকায় ফ্লাইওভারের উপরে বিভিন্ন র‌্যাম্পের মুখে যাত্রী নামানো হচ্ছে বলে যাত্রীরা জানান।এ ব্যাপারে সায়েদাবাদ জনপদ মোড়ে সাইদুল নামের এক যাত্রী বলেন, কাচপুর এলাকা থেকে সায়দাবাদ আসার জন্য গুলিস্তানে একটি বাসে উঠেন তিনি। প্রথমে তাকে বলা হয় বাসটি নিচ দিয়ে যাবে। কিন্তু নিচের রাস্তা খারাপ থাকায় ফ্লাইওভার দিয়ে এসে তাকে সায়েদাবাদের র‌্যাম্প মুখে নামিয়ে দেয়া হয়। তারপর অনেকটা পথঘুরে তিনি সায়েদাবাদ জনপদের মুখে র‌্যাম্প দিয়ে নিচে নামেন।একই কথা বলেন যাত্রীবাড়ীতে আলম নামের এক যাত্রী। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ-গুলিস্তানের বেশিরভাগ বাসই ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে যাতায়াত করে। এসব বাস যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদের ও রাজধানী সুপার মার্কেটের যাত্রীদের ফ্লাইওভারের ওপর নামিয়ে দেয়। এতে আরও দুর্ঘটনায় ঝুঁকি বাড়ে। কারণ ফ্লাইওভারের উপরে দ্রুতগতিতে বাস চলাচল করে। এর মধ্যে রাস্তা পার হয়ে উল্টোপথে নিচে নামতে হয়। আদালত ফ্লাইওভারের সিঁড়ি অপসারণের আদেশ দিলেও বাস থামানো বন্ধ করছে বাস চালকরা। তাই যাত্রীদের ভোগান্তি আরও বেড়ে গেছে বলে জানান তিনি।এদিকে আদালতের আদেশের পর গত মঙ্গলবার ফ্লাইওভারের বিভিন্ন স্থানের সিঁড়ি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) অঞ্চল-৫ এর নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মামুনুর রশিদের নেতৃত্বে এই সিঁড়ি অপসারণের কাজ শুরু করা হবে। তবে গত শুক্রবার পর্যন্ত ফ্লাইওভার থেকে সিঁড়ি অপসারণ করা হয়নি স্থানীয়রা জানান।এ ব্যাপারে ডিএসসিসি'র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বেলার সংবাদকে বলেন, আদালতের নির্দেশ পাওয়ার পর ফ্লাইওভারের সিঁড়ি বন্ধ করা দেয়া হয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যে সিঁড়ি অপসারণের কাজ শুরু হবে। তবে অবৈধ বাস স্টপেজ বিষয়ে আরও কড়াকড়ি করা হবে। ফ্লাইওভারের উপরে বাস থামানো সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। বাস-লেগুনা অবৈধ স্টপেজ বন্ধের বিষয়ে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগকে নির্দেশনা দেয়া হবে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close