logo

orangebd logo
পানামা পেপারস কেলেঙ্কারি
নওয়াজ শরিফের দুর্নীতি তদন্তে যৌথ দল গঠনের নির্দেশ
সংবাদ ডেস্ক

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে করা দুর্নীতির মামলায় বিভক্ত রায় দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। দেশটির বিরোধীদলগুলোর পক্ষ থেকে করা এ সংক্রান্ত মামলায় গতকাল পাঁচ সদস্যের বিচারক প্যানেলের মধ্যে তিনজন নওয়াজের পক্ষে এবং দু'জন তার বিরুদ্ধে রায় দেন। সংখ্যাগরিষ্ঠ বিচারক পক্ষে অবস্থান নেয়ায় পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির অভিযোগ থেকে নিষ্কৃতি পান নওয়াজ। এদিকে তার পরিবার কীভাবে অর্থ কাতারে পাঠিয়েছে, তা তদন্ত করতে যৌথ তদন্ত দল জেআইটি (জয়েন্ট ইনভেস্টিগেশন টিম) গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বিবিসি, রয়টার্স, আল-জাজিরা, দ্য ডন।

২০১৬ সালের ১ নভেম্বর নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিদেশে অবৈধ বিনিয়োগের অভিযোগ তদন্তে একটি তদন্ত কমিশন গঠন করে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। বহুল আলোচিত পানামা পেপারস ফাঁসের পর বিরোধীদল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই), জামায়াতে ইসলামীসহ কয়েকটি দলের আবেদনের প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত দেন আদালত। সে অনুযায়ী গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে রায় দেন সুপ্রিম কোর্ট।

এক প্রতিবেদনে জানা যায়, পাঁচ বিচারপতি আসিফ সাইয়িদ খোসা, গুলজার আহমেদ, এজাজ আফজাল খান, আজমত সাইয়িদ ও ইজাজুল আহসানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন। তাদের মধ্যে বিচারপতি খোসা ও গুলজার নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে রুল জারি করেন। বাকি তিন বিচারপতি জেআইটি গঠনের পক্ষে রায় দেন। অ্যাপেঙ্ কোর্টের বাইরে গতকাল রায়ের পর পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাজা আসিফ সাংবাদিকদের জানান, পাঁচজন বিচারপতির বেঞ্চে ৩-২ এ রায় বিভক্ত হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার চিঠিতে পানামা কেলেঙ্কারির ঘটনা তদন্তের জন্য যে কমিশন গঠনের কথা বলেছিলেন, আদালতও সেই রায় দিয়েছেন। খাজা আরও বলেন, 'আমরা সব ধরনের তদন্তের জন্য প্রস্তুত। গতকাল আদালতে এটা প্রমাণিত হয়েছে যে বিরোধীদের দেয়া তথ্য প্রমাণ যথেষ্ট নয়। আমরা সফল হয়েছি।'

৩ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে বিশ্বের প্রভাবশালী রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান এবং রাঘববোয়ালদের আর্থিক কেলেঙ্কারির তথ্য ফাঁস করে সাড়া ফেলে আলোচিত 'পানামা পেপারস'। ফাঁস হওয়া ওই গোপন নথিতে অর্থ পাচারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ছেলের নাম ওঠে আসায় নিজ দেশে চাপের মুখে পড়েন তিনি। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি আদালতে গড়ায়। বিরোধীদলগুলো থেকে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়।

পানামাভিত্তিক আইনি সহায়তা প্রতিষ্ঠান মোসাক ফনসেকার এক কোটির বেশি নথি ফাঁস হয়। এসব নথিতে চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং থেকে শুরু করে বলিউড সুপারস্টার অমিতাভ বচ্চন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফসহ বিশ্বের বহু প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের নাম ওঠে আসে। ধনী আর ক্ষমতাধর ব্যক্তিরা কীভাবে, কোন কৌশলে কর ফাঁকি দিয়ে গোপন সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলেছেন, তা বেরিয়ে আসে এসব তথ্যে।

ফাঁস হওয়া নথিতে নওয়াজের চার ছেলেমেয়ের মধ্যে তিনজন মরিয়ম, হাসান ও হোসেনের নাম এসেছে। নওয়াজের সন্তানরা মোসাক ফনসেকার মাধ্যমে পরিচালিত বিভিন্ন অফশোর কোম্পানির মালিকানার অংশীদার। সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন বিরোধীদল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই), জামায়াতে ইসলামিসহ কয়েকটি দলের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পানামা পেপারস কেলেঙ্কারি নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়।

নওয়াজ শরিফের ক্ষমতাসীনদল পাকিস্তান মুসলিম লিগের (পিএমএলএন) দাবি, পাকিস্তান ও উপসাগরীয় অঞ্চলে বৈধ পথে পারিবারিক ব্যবসা থেকেই এ সম্পদ অর্জিত হয়েছে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close