logo

ঢাকা, শুক্রবার ৫ ফাল্গুন, ১৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

orangebd logo
আস্থা ফেরাতে পদক্ষেপ নিতে হবে বিশ্বব্যাংককেই : আইনমন্ত্রী
নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পদ্মা সেতু মামলায় হেরে যাওয়ায় বাংলাদেশসহ অন্য দেশগুলোর আস্থা ফেরাতে বিশ্বব্যাংককেই পদক্ষেপ নিতে হবে। অন্যায়ের প্রতিকার করতে হবে। বাংলাদেশকে ক্ষতিপূরণ দিয়ে অথবা যেসব কর্মকর্তা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এই অবিচার করেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে বিশ্বব্যাংক এই প্রতিকার করতে পারে।

গতকাল বিচার প্রশাসন ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে এক প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের কর্মকর্তাদের এই প্রশিক্ষণে ৪২ জন অংশগ্রহণ করেছেন। অনুষ্ঠানে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মোহাম্মদ জহিরুল হক এবং ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মূসা খালেদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আনিসুল হক বলেন, বিশ্বব্যাংককে আমাদের আস্থা অর্জন করতে একটা ব্যবস্থা নিতে হবে। যাতে কেবল বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের অন্যান্য দেশ মনে করতে পারে যেকোন অন্যায় হলে বিশ্বব্যাংক তার প্রতিকার করে। সন্দেহের বশে বিশ্বব্যাংক যে আচরণ করেছে, তার প্রতিকার চায় বাংলাদেশ। আপনারা জানেন, ১৪ দল এক বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। প্রতিকার ক্ষতিপূরণ দিয়েও হতে পারে। যে সব কর্মকর্তা আমাদের বিরুদ্ধে এই অবিচার করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েও প্রতিকার করতে পারে। এ সময় কেউ যদি মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে কারও সম্মানহানি করে, তাহলে ওই ব্যক্তি নিশ্চয়ই ব্যবস্থা নিতে পারেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী বলেন, আমরা চাই মানুষ ন্যায়বিচার পাক, বিচার বিভাগ স্বাধীন না হলে সেটা সম্ভব না। এখন বিচার বিভাগের যে কাজ (মানুষকে ন্যায়বিচার প্রদানে), সেটা আপনারা করবেন। বিচার বিভাগ স্বাধীন হতে হলে বিচারকদের ব্যক্তিগত জীবনে আর্থিক স্বাধীনতা দরকার। এ কারণে আমরা ছোট্ট একটা অবদান হিসেবে বেতন বাড়িয়েছি। বিচারকদের কাজের সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে আদালত ভবন নির্মাণসহ সরকারের অন্যান?্য উদ্যোগ সম্পর্কেও কথা বলেন মন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো প্রকল্প পদ্মা সেতুতে অর্থায়নের জন?্য চুক্তি করেও বিশ্বব্যাংক পরে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে তা বাতিল করে। এ নিয়ে কানাডার একটি আদালতে মামলাও হয়। সম্প্রতি দেয়া ওই মামলার রায়ে বলা হয়, মামলায় প্রমাণ হিসেবে যেগুলো উপস্থাপন করা হয়েছে সেগুলো অনুমানভিত্তিক, গাল-গল্প ও গুজবের বেশি কিছু নয়। অবশ্য বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন না করলেও বাংলাদেশ নিজস্ব অর্থায়নেই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close