logo

orangebd logo
আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা
কেশবপুরে বিরোধপূর্ণ জমিতে ঘর নির্মাণ
প্রতিনিধি, কেশবপুর (যশোর)

যশোরের কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর গ্রামের এক সরকারি কর্মচারী আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিরোধপূর্ণ জমিতে পাকা ঘর নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। গত রোববার দুপুরে খবর পেয়ে পুলিশ ওই ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়ে ফিরে আসার পরপরই এলাকার দুই আওয়ামী লীগ নেতার হুকুমে মহলটি পুনরায় নির্মাণকাজ অব্যাহত রেখেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মজিদপুর গ্রামের জোনাব আলী মোড়ল ৫ ছেলে ও ৬ মেয়ে রেখে প্রায় দেড় যুগ আগে মারা যান। এরপর থেকে আদ্যাবধি জোনাব আলী মোড়ল ও তার স্ত্রী হাজেরা বেগমের নামিও বসতভিটার ১৬২ ও ১৬৫ দাগের ৭৯ শতক জমি ছেলে মেয়েদের নামে ভাগাভাগি হয়নি। এদিকে, গত ১৬ জুন জোনাব আলী মোড়লের বড় ছেলে কেশবপুর খাদ্য গুদামের দারোয়ান আতাউর রহমান সম্পূর্ণ গায়ের জোরে ইট, বালু, রড, সিমেন্ট ইত্যাদি নিয়ে অর্ধশত লোকের সমাগম ঘটিয়ে বিরোধপূর্ণ জমিতে পাকাঘর নির্মাণ কাজ চালিয়ে যেতে থাকেন। এ সময় তার ভাই নূরুল ইসলাম খোকন বাধা দিতে গেলে তাকে জীবন নাশের হুমকি দিয়ে নির্মাণ কাজ চালিয়ে যেতে থাকেন। এ ঘটনায় শান্তিশৃঙ্খলা ভঙ্গের আশঙ্কায় গত ১৯ জুন নূরুল ইসলাম খোকন বাদি হয়ে যশোর বিজ্ঞ অতিরিক্তি ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে ১৪৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার নং-৭৭১/১৭। আদালত শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখাসহ বিরোধীয় তফসিল জমির প্রকৃত দখলকার বিষয়ে সরেজমিনে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্যে কেশবপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। গত ২১ জুন কেশবপুর থানার এসআই ফকির ফেরদৌস আলী ওই জমির ওপর ১৪৪ ধারা জরিসহ সব কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন। এ ঘটনার ২৪ দিন অতিবাহিত হতে না হতেই গত ১৬ জুলাই আতাউর রহমান আদালতের এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পুনরায় ওই বিরোধীয় জমিতে পাকা ভবনের নির্মাণকাজ চালিয়ে যেতে থাকেন। খবর পেয়ে পুলিশ ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিয়ে ফিরে আসার সঙ্গে সঙ্গেই এলাকার দুই আওয়ামী লীগ নেতা আবদুস সাত্তার ও বুলবুল এর হুকুমে ওই মহলটি পুনরায় নির্মাণ কাজ অব্যাহত রেখেছেন বলে বাদী নূরুল ইসলাম খোকন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার ওসি তদন্ত শাহাজান আলী বলেন, বিরোধীয় জমির নির্মাণ চালিয়ে যাওয়ার খবর শুনেই অভিযান চালিয়ে তা বন্ধ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে প্রয়েজনে তাদের বিরুদ্ধে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close