logo

ঢাকা, শুক্রবার ৫ ফাল্গুন, ১৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

orangebd logo
ফের বস্নাস্ট রোগ আতঙ্কে দক্ষিণবঙ্গের গম চাষি
জেলা বার্তা পরিবেশক, বরিশাল

বিপুল সম্ভাবনাময় গমের আবাদ নিয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের জোড়াল ভূমিকার অনুপস্থিতির মধ্যেই দ্বিতীয় বছরের মতো ছত্রাকবাহী 'বস্নাষ্ট' রোগে এই দানাদার খাদ্য ফসলের ভবিষ্যত কিছুটা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। গত বছর দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ৭টি জেলায় প্রায় ১৫ হাজার হেক্টর জমিতে ছত্রাকবাহী বস্নাস্ট রোগের সংক্রমণে এবার ওইসব জেলায় গম আবাদ নিরুৎসাহিত করা হয়। ফলে আবাদ লক্ষ্যমাত্রাও গত বছরের অর্জিত লক্ষ্য থেকে প্রায় ৩০ হাজার হেক্টর হ্রাস করে সাড়ে ৪ লাখ হেক্টরে নির্ধারণ করে কৃষি মন্ত্রণালয়।

গতবছর দেশে লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে দেশে পায় ৪ লাখ ৮০ হাজার হেক্টর জমিতে গম আবাদ হলেও বস্নাস্ট রোগের কারনে প্রায় ২০ হাজার হেক্টরের ফসল বিনষ্ট হয়। সংক্রমন মূক্ত এলাকার জমি থেকে গত মৌসুমে দেশে গম উৎপাদনের পরিমাণ ছিল প্রায় ১৪ লাখ টনের মতো। চলতি মৌসুমে আবাদ লক্ষ্যমাত্রা সাড়ে ৪ লাখ হেক্টর নির্ধারণ করা হলেও শেষ পর্যন্ত তা ৪লাখ ৪৫ হাজার হেক্টরে সীমাবদ্ধ রয়েছে বলে জানা গেছে।

শীতপ্রধান দেশের এই খাদ্য ফসল ইতোমধ্যে বাংলাদেশের কৃষকদের কাছে জনপ্রিয়তা ও আস্থা অর্জন করলেও পর পর দুটি মৌসুমে ছত্রাকবাহী রোগের সংক্রমণে দুশ্চিন্তা বৃদ্ধি করছে। অথচ গম আবাদে সেচ ব্যায় সহ সার ও বালাই ব্যবস্থাপনা যথেষ্ট সাশ্রয়ী। উপরন্তু ধানের চেয়ে গমের দামও যথেষ্ট ভালো। ফলে সারা দেশেই গম আবাদে কৃষকদের মধ্যে গত কয়েক বছরে আগ্রহ সৃষ্টি হলেও ডিএই সহ কৃষি মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে এই দানাদার খাদ্য ফসল আবাদে মাঠ পর্যায়ে তেমন কোন সমপ্রসারণ পদক্ষেপ অনুপস্থিত বলে অভিযোগ কৃষকদের। এমনকি আমাদের মতো কম শীতপ্রধান দেশের জন্য কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীগণ তাপ সহনশীল উচ্চফলনশীল গমের জাত উদ্ভাবন করলেও তার বীজ ও আবাদ প্রযুক্তি সারা দেশের মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের কাছে পেঁৗছেনি এখনো।

গতবছর যে ৭টি জেলায় গমের বস্নাস্ট রোগ দেখা দেয় সেসব জেলাগুলোতে চলতি মৌসুমে গমের আবাদ নিরুৎসাহিত করা হয়। এমনকি ওইসব জেলাগুলোতে বিএডিসির গম বীজও সরবরাহ করেনি।

কৃষি বিজ্ঞানীদের মতে, কোন এলাকায় বস্নাস্ট রোগের সংক্রমণ ঘটলে পর পর দুটি মৌসুমে ওই ফসল আবাদ বন্ধ রাখলে পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। কিন্তু আবাদ নিরুৎসাহিত করা হলেও তা বন্ধ করা যায়নি। এমনকি নিরুৎসাহিত করার মধ্যেই চলতি মৌসুমে ভোলাতে ৫ হাজার ৩শ হেক্টর জমিতে গম আবাদের লক্ষ্যামত্রা স্থির করে কৃষি মন্ত্রণালয়। এর বিপরীতে আবাদ হয়েছে আড়াই হাজার হেক্টরের বেশি। মেহেরপুরেও নিরুৎসাহিত করার মধ্যেও ১৪ হাজার হেক্টর জমিতে গম আবাদের লক্ষ্য স্থির করে কৃষি মন্ত্রণালয়। কিন্তু প্রকৃত আবাদ হয়েছে প্রায় ৪ হাজার হেক্টর। গতবছর আক্রান্ত অন্য জেলাগুলোতেও নিরুৎসাহিত করার মধ্যে চলতি মৌসুমে আবাদ লক্ষ্যমাত্রা স্থির করার পাশাপাশি কৃষকগণ তার আবাদও করেছেন কমবেশি।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.