logo

orangebd logo
'ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড' এ তিনদিনের ধর্মঘট
মূল্যস্ফীতির চেয়ে বেতন বৃদ্ধি কম
অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

প্রত্যাশার চেয়ে কম বেতন বাড়ানোর প্রস্তাবের প্রতিবাদে ধর্মঘটে গেছে যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংক 'ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড' এর শ্রমিক-কর্মচারীরা। মঙ্গলবার তারা তিন দিনের ধর্মঘট শুরু করেছে। ধর্মঘটীদের মধ্যে ব্যাংকের রক্ষণাবেক্ষণ বিভাগের কর্মী, নিরাপত্তাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণীর কর্মী রয়েছে। খবর বিবিসি, গার্ডিয়ান, টেলিগ্রাফ, ফিন্যান্সিয়াল টাইমস। গত ৫০ বছরের মধ্যে এটি ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডে ধর্মঘটের প্রথম ঘটনা। এর আগে ১৯৬০ সালে সর্বশেষ ধর্মঘটের ঘটনা ঘটেছিল। তবে ধর্মঘট নিয়ে মোটেও উদ্বিগ্ন নন কর্তৃপক্ষ। কারণ ব্যাংকটির মোট কর্মীদের খুবই ক্ষুদ্র একটি অংশ ধর্মঘটে গেছে। বর্তমানে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডে কর্মচারীর সংখ্যা ৪ হাজার। সে হিসেবে মাত্র ২ শতাংশ কর্মী ধর্মঘটে অংশ নিয়েছে।

ধর্মঘটে অংশগ্রহণকারীরা লন্ডনে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের বাইরে গভর্নর মার্ক কার্নে এর মুখোশ ও লাল জামা বিক্ষোভ করছে। খবরে প্রকাশ, ব্যাংক অব ইংল্যান্ড সম্প্রতি বার্ষিক বেতন বৃদ্ধির অংশ হিসেবে তাদের কর্মীদের বেতন ১ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু বেতন বৃদ্ধির এই হার কর্মীদের মনঃপুত হয়নি। তাদের দাবি, দেশের বিদ্যমান মূল্যস্ফীতির চেয়ে কম বেতন বাড়ানোর প্রস্তাব কার্যকর হলে তাদের প্রকৃত বেতন কমে যাবে। উল্লেখ, যুক্তরাজ্যের বর্তমান মূল্যস্ফীতির হার ২ দশমিক ৬০ শতাংশ। ধর্মঘট শ্রমিকদের সংগঠন ইউনাইট ইউনিয়ন বেশ কিছুদিন আগেই ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়েছিল। এমন অবস্থায় সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকেও বসেছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সোমবার দীর্ঘ বৈঠক করে কোন ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারেনি তারা।

ইউনাইট ইউনিয়নের নেতা পিটার কাভানাগ পরিস্থিতির জন্য গভর্নর মার্ক কার্নেকে দায়ী করেছেন। তিনি বলেন, মূল্যস্ফীতির চেয়ে কম বেতন বাড়িয়ে গভর্নর তাদের সঙ্গে পরিহাস করেছেন। তাদেরকে কাজ থেকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিয়েছেন। সোমবার আলোচনা ভেঙ্গে যাওয়ার পর ধর্মঘট ইস্যুতে ইউনাইট ইউনিয়ন সদস্যদের মধ্যে ভোটাভুটি করে। সংগঠনের ৮৪ জন সদস্যের ৯৫ ভাগ ধর্মঘটের পক্ষে মত দেয়। ধর্মঘট বিষয়ে দেওয়া ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ব্যাংকের মাত্র ২ শতাংশ কর্মী ধর্মঘট শুরু করেছে। ধর্মঘটের কারণে যাতে ব্যাংকের কার্যক্রম ও সেবা ব্যাহত না হয় সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ধর্মঘটে অংশ নেওয়া কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করা হবে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close