logo

orangebd logo
দুর্বল রিঙ্গিতে মালয়েশিয়ায় বাড়ছে পাম অয়েলের দাম
অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

মালয়েশিয়ার বাজারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় রয়েছে পাম অয়েলের দর। গত শুক্রবার ভোজ্যতেলটির দাম বেড়েছে ১ শতাংশের বেশি। স্থানীয় মুদ্রা রিঙ্গিতের অবনমনের প্রভাবে পাম অয়েলের দাম বাড়ছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। খবর রয়টার্স।বুরসা মালয়েশিয়া ডেরিভেটিভস এঙ্চেঞ্জে শুক্রবার পাম অয়েলের দাম বেড়েছে ১ দশমিক ৪ শতাংশ। আগামী সেপ্টেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে এদিন প্রতি টন পাম অয়েল বিক্রি হয়েছে ২ হাজার ৪৮৪ রিঙ্গিতে। এদিন লেনদেন হয়েছে ৪২ হাজার ২৪০ লট (প্রতি লটে ২৫ টন) পাম অয়েল।দরবৃদ্ধির কারণ হিসেবে স্থানীয় মুদ্রা রিঙ্গিতের অবনমনের কথা বলছেন ব্যবসায়ীরা। পাশাপাশি বিশ্ববাজারে সয়াবিন ও পাম অলিনের দরবৃদ্ধিরও প্রভাব পড়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার রিঙ্গিতের মান কমেছে দশমিক ২ শতাংশ। রিঙ্গিতে লেনদেন হওয়ায় ভিন্ন মুদ্রা ব্যবসায়ীদের কাছে পণ্যটি অপেক্ষাকৃত সস্তা হয়ে উঠছে। এ কারণে ভোজ্যতেলটির দরে ভারসাম্য আনতে ব্যবসায়ীরা পণ্যটির দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন।এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো বোর্ড অব ট্রেডে (সিবিওটি) শুক্রবার পাম অয়েলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে দশমিক ৪ শতাংশ। একইভাবে চীনের ডালিয়ান কমোডিটি এঙ্চেঞ্জে পণ্যটির দাম বেড়েছে দশমিক ৭ শতাংশ। একই বাজারে শুক্রবার পাম অলিনের দাম বেড়েছে ১ দশমিক ৪ শতাংশ। সয়াবিন ও পাম অলিনের দাম বাড়লে পাম অয়েলের দরেও ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা সৃষ্টি হয়। ভোজ্যতেলটির সামপ্রতিক দর বৃদ্ধিতেও বিষয়টি মুখ্য ভূমিকা রাখছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।জানা গেছে, মে মাসে মালয়েশিয়ায় পাম অয়েল উৎপাদন লক্ষ্য ছিল ১৬ লাখ ৩০ হাজার টন, যা এপ্রিলের তুলনায় ৫ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। মাস শেষে দেখা গেছে, দেশটিতে ভোজ্যতেলটির উৎপাদন হয়েছে আরও বেশি। এপ্রিলের তুলনায় গত মাসে দেশটিতে পাম অয়েল উৎপাদন বেড়েছে ৫ দশমিক ৭ শতাংশ।বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মে মাসে মালয়েশিয়া থেকে সব মিলে ১৪ লাখ ৬০ হাজার টন পাম অয়েল রপ্তানি হয়েছে। আগের মাসে (এপ্রিল) দেশটি থেকে ভোজ্যতেলটি রপ্তানির পরিমাণ ছিল ১৩ লাখ ৬০ হাজার টন। অর্থাৎ এক মাসের ব্যবধানে মালয়েশিয়া থেকে পাম অয়েল রপ্তানি বেড়েছে ১ লাখ টন। রমজানের কারণে মে মাসে মালয়েশিয়া থেকে পাম অয়েল রপ্তানি বেড়েছে বলে জানিয়েছেন কুয়ালালামপুরের এক ব্যবসায়ী।অন্যদিকে বস্নুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একই মাসে দেশটি থেকে ভোজ্যতেলটির রপ্তানি বেড়েছে ১৩ শতাংশ। মে মাসে মোট ১৪ লাখ ৫০ হাজার টন পাম অয়েল রপ্তানি করেছে মালয়েশিয়া, যা গত বছরের সেপ্টেম্বরের পর পণ্যটির সর্বোচ্চ মাসিক রপ্তানি।উৎপাদন ও রপ্তানি চিত্রে তেমন অমিল না থাকলেও মালয়েশিয়ায় পাম অয়েলের মজুদ নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য প্রকাশ করেছে রয়টার্স ও বস্নুমবার্গ।রয়টার্সের জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মে মাসে মালয়েশিয়ায় পাম অয়েলের মজুদ এপ্রিলের তুলনায় ১ দশমিক ৩ শতাংশ কমেছে। গত মাসে দেশটিতে ভোজ্যতেলটির মজুদ ছিল ১৫ লাখ ৮০ হাজার টন। এর মধ্য দিয়ে ২০১০ সালের মে মাসের পর মালয়েশিয়ায় পাম অয়েলের মজুদ সর্বনিম্নে নেমে এসেছে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close