logo

orangebd logo
বিরোধীদের মুক্তি দেয়ার জন্য মাদুরোকে ট্রাম্পের হুঁশিয়ারি
সংবাদ ডেস্ক

ভেনিজুয়েলায় দুই বিরোধীদলীয় নেতার গ্রেফতারের ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই সঙ্গে বিরোধী নেতাদের বিচারবহির্ভূত গ্রেফতার করার দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে 'একনায়ক' আখ্যা দিয়েছেন এবং আটক নেতাদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। গত মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এমন মন্তব্য করেন। বিবিসি, রয়টার্স।রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সোমবার ভেনিজুয়েলার মাদুরোবিরোধী রাজনীতিক লিওপোলদো লোপেজ ও এন্টনিও লেদেজমা আটক করে গৃহবন্দী রাখা হয়েছিল। তারপরের দিন মধ্যরাতে গোয়েন্দা কর্মকর্তারা তাদের সামরিক কারাগারে নিয়ে যায়। আটককৃত দুই রাজনীতিকই ২০১৪ সাল থেকেই গৃহবন্দী অবস্থায় ছিলেন। সরকারের পক্ষ থেকে তাদের বিরুদ্ধে সরকারবিরোধী বিক্ষোভের সময় সহিংসতা উস্কে দেয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে। আটককৃত দুই নেতা প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত। সংবিধান সংস্কারের লক্ষ্যে রোববার অনুষ্ঠিত নির্বাচন বয়কটের আহ্বান জানিয়েছিলেন লোপেজ ও লেদেজমা।তাদের গ্রেফতারের ঘটনায় 'ব্যক্তিগতভাবে মাদুরো দায়ী' বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বিবৃতিতে ট্রাম্প বলেন, তাদের যে কোন নিরাপত্তা বিঘি্নত হলে যুক্তরাষ্ট্র মাদুরোকে দায়ী করবে। মাদুরো সম্পূর্ণ অবৈধভাবে ওই দুই নেতাকে আটক করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেঙ্ টিলারসনও আটকের বিষয়টিকে উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেন। ভেনিজুয়েলার চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ৩৮ জন নিহত হয়েছেন। শত শত মানুষ আহত ও আটক হয়েছেন।তবে প্রেসিডেন্ট মাদুরোর দাবি, আন্দোলনকারীরা মার্কিন ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চাইছে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর ওপর অবরোধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে কোন মার্কিন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান মাদুরোর সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক রাখতে পারবে না। আর সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়ন জানায়, ভেনিজুয়েলার নির্বাচনে রাষ্ট্র কর্তৃক সেনা সদস্যদের অতিরিক্ত বল প্রয়োগের কারণে তারা নির্বাচনকে স্বীকৃতি না-ও দিতে পারে। এদিকে মাদুরোর দাবি, বিপ্লবের জন্য এ ভোটের প্রয়োজন। ?তিনি মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে ভয় করেন না। তিনি বলেন, 'সাম্রাজ্যবাদী ট্রাম্প আমার বিরুদ্ধে তার পদক্ষেপে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি আমাকে কতটা ঘৃণা করেন। কিন্তু আমি বিদেশি সরকারের নির্দেশ কখনও মানিনি এবং ভবিষ্যতেও মানবো না। আমি স্বাধীন দেশের প্রেসিডেন্ট।' প্রেসিডেন্ট মাদুরো'র দাবি, আন্দোলনকারীরা মার্কিন ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চাইছে।জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে সিআইএ প্রধান মাইক পম্পেও ইঙ্গিত দেন, ভেনিজুয়েলার নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করতে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ তৎপরতা চালাচ্ছে। দুই লাতিন দেশ মেঙ্েিকা ও কলম্বিয়া সরকার যুক্তরাষ্ট্রকে সহযোগিতা দিচ্ছে বলেও আভাস দেন তিনি। দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট তখন জানায়, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আয়োজিত এক নিরাপত্তা ফোরামের প্রশ্নোত্তর পর্বে পম্পেও ভেনিজুয়েলায় যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপের নতুন পরিকল্পনার ইঙ্গিত দেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো এবং তার সমর্থকরা। মেঙ্েিকা ও কলম্বিয়া সরকারের কাছ থেকে ব্যাখ্যা দাবি করা হয়েছে। শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ করে যাচ্ছেন মাদুরো। এদিকে সহিংসতা থামাতে রাজনৈতিক দলগুলোকে শান্তিপূর্ণ সমাধান খোঁজার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close