logo

orangebd logo
এগিয়ে রামনাথ
ভারতে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন
ফল প্রকাশ বৃহস্পতিবার
সংবাদ ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের দেশ ভারতের চতুর্দশ রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে গতকাল। পরোক্ষ এ নির্বাচনে লোকসভা, রাজ্যসভা ও বিধানসভার সদস্যদের ভোটে আগামী পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হবেন দেশটির নতুন রাষ্ট্রপতি। এ দিন আনুষ্ঠানিকভাবে এনডিএ প্রার্থী রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে বিরোধী প্রার্থী মীরা কুমারের মধ্যে লড়াই হলেও, তবে অঙ্কের হিসাবে কোবিন্দই এগিয়ে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, শতাংশের হিসাবে কোবিন্দের পক্ষে প্রায় ৬২ শতাংশ ভোট পড়তে পারে। বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য ভোট দেবেন ৪৮৯৬ জন সাংসদ ও বিধায়ক। আগামী বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) এ নির্বাচনের ফল জানা যাবে।

গতকাল স্থানীয় সময় সকাল থেকেই ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত চলে। সংসদের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যের বিধানসভাতেও তা চলে। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএর প্রার্থী বিহারের সাবেক রাজ্যপাল রামনাথ কোবিন্দ এবং কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএর প্রার্থী লোকসভার সাবেক স্পিকার মীরা কুমারের মধ্য থেকে একজনকে বেছে নেবেন ভোটাররা। রাজনীতির এ খেলায় প্রধান দুই জোটই এবার প্রার্থী বেছে নিয়েছে দলিত সমপ্রদায় থেকে। ফলে ১৯৯৭-২০০২ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করা কে আর নারায়ণের পর এবার দ্বিতীয় দলিত রাষ্ট্রপতি পেতে যাচ্ছে ভারত। আগামী ২৪ জুলাই ভারতের প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির মেয়াদপূর্তির পরদিন শপথ নিয়ে দিলি্লর রাইসিনা হিলের রাষ্ট্রপতি ভবনে উঠবেন নতুন রাষ্ট্রপ্রধান। পেশায় আইনজীবী রামনাথ কোবিন্দ বিহারের গভর্নর হওয়ার আগে দুইবার রাজ্যসভার সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আর তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ৭২ বছর বয়সী মীরা কুমার ২০০৯ সালে লোকসভার স্পিকার হওয়ার আগে পাঁচবার লোকসভার সদস্য ছিলেন।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, দিলি্লর পার্লামেন্ট ভবন এবং সব রাজ্যের বিধানসভায় সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে।

এদিকে গতকাল থেকেই শুরু হয়েছে ভারতীয় সংসদের বাদল অধিবেশন। সকালেই সংসদে পৌঁছে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রথম ভোট দেন তিনিই। সংসদের ১৬ নম্বর কক্ষে চলে এ ভোটগ্রহণ। পরে ভোট দেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতীরা। পাশাপাশি ভোট দিয়েছেন ওডিশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান, আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালও। সারাদেশে মোট ৩২টি জায়গায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিবিসি লিখেছে, ক্ষমতাসীন বিজেপি ও তাদের শরিক দলগুলোর বিধায়ক সংখ্যা ধরে হিসাব করলে ৭১ বছর বয়সী রামনাথ কোবিন্দের জয় অনেকটাই নিশ্চিত। এছাড়াও জনতা দল ইউনাইটেড, বিজু জনতা দল, এআইএডিএমকে ও তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির মতো আঞ্চলিক দলগুলো এনডিএর প্রার্থীকে সমর্থন দেয়ায় বিরোধী শিবির বড় ধাক্কা খেয়েছে। অপরদিকে এ নির্বাচন শুরু হতেই আবারও প্রকাশ্যে এসেছে মুলায়ম সিংহ যাদব এবং অখিলেশ যাদবের মধ্যে মতপার্থক্য। বিজেপির রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী রামনাথ কোবিন্দকেই ভোট দিয়েছেন মুলায়ম। যদিও বিরোধী প্রার্থী মীরা কুমারকে ভোট দেয়ার জন্য সপা বিধায়কদের নির্দেশ দেন অখিলেশ। অপরদিকে, এনসিপি নেতা প্রফুল্ল পেটেলের দাবি, তাদের দলের সব সংসদ সদস্য ও বিধায়ক মীরাকে ভোট দেবেন।

ভোট পদ্ধতি : লোকসভার ৫৪৩ জন, রাজ্যসভার ২৩৩ জন সদস্য এবং ভারতের ২৯ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত দিলি্ল ও পদুচেরির মোট ৪ হাজার ১২০ জন বিধায়কের ভোটে নির্বাচিত হবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি। তবে ভোট গণনা পদ্ধতি সাধারণ নির্বাচনের মতো সরল নয়।

সাধারণ নির্বাচনে প্রতিটি ভোটের মান সমান হলেও রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটের মান নির্ভর করে ভোটারের ওপর। ভোটার যদি লোকসভা ও রাজ্যসভার সদস্য হন, তাহলে তার ভোটের মান ৭০৮। আবার বিধানসভার সদস্যদের ভোটের মান নির্ধারিত হয় ওই বিধানসভার মোট আসন ও জনসংখ্যার আনুপাতিক হারে। এ বিচারে উত্তর প্রদেশের বিধায়কদের ভোটের মান সবচেয়ে বেশি, ২০৮। আর সিকিম ও অরুণাচলের বিধায়কদের ভোটের মান সবচেয়ে কম, মাত্র ৮।

যে ইলেক্টোরাল কলেজ নতুন রাষ্ট্রপতিকে নির্বাচিত করবে, সেই ব্যবস্থার মধ্যে রয়েছেন মোট ৪ হাজার ৮৯৬ জন ভোটার। এ জনপ্রতিনিধিদের ৪ হাজার ১২০ জন বিধায়ক এবং ৭৭৬ জন সংসদ সদস্য। দিলি্লতে সংসদের বাইরে নিজ নিজ রাজ্যে যে ৫৫ জন এমপি ভোট দেবেন, তাদের মধ্যে সিংহভাগই তৃণমূল কংগ্রেসের। বিধান পরিষদ সদস্যরা রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ পান না। পাশাপাশি লোকসভায় মনোনীত দুই অ্যাংলো ইন্ডিয়ান সদস্য এবং রাজ্যসভার মনোনীত ১২ সদস্যও আজ ভোট দিতে পারবেন না। গোটা প্রক্রিয়াটিই সম্পন্ন হবে গোপন ব্যালটে। কোন দল এ বিষয়ে কোন সদস্যের ওপরই হুইপ জারি করতে পারে না। প্রত্যেক প্রার্থীর মনোনয়নে ৫০ জন প্রস্তাবক (প্রোপোজার) এবং ৫০ জন সমর্থক (সেকেন্ডার) প্রয়োজন। গতকাল কোন ভোটকেন্দ্রেই এমপি বা বিধায়করা পেন নিয়ে ঢুকতে পারবেন না মর্মে নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

ভারতের ইতিহাসে কেবল প্রথম রাষ্ট্রপতি বাবু রাজেন্দ্র প্রসাদ দুই মেয়াদে ওই পদে থাকার সুযোগ পেয়েছেন। কংগ্রেসের সময়ে রাষ্ট্রপতি হওয়া প্রণব মুখার্জিকে আবারও রাষ্ট্রপতি করার প্রস্তাব কোন কোন দল দিলেও ক্ষমতাসীনরা তা মানেনি। হিন্দু জাতীয়তাবাদের সমর্থনে ভারতের রাষ্ট্রক্ষমতায় আসা বিজেপি এই প্রথম নিজেদের আদর্শের কাউকে রাষ্ট্রপতি করার সুযোগ পেয়েছে। এ বিষয়টি ইঙ্গিত করেই কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী রোববার বলেন, এ নির্বাচন পরিণত হয়েছে আদর্শের লড়াইয়ে। সংকীর্ণ ধর্মীয় মূল্যবোধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবেই বিরোধী জোট এ ভোটে প্রার্থী দিয়েছে।

খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার
font
font
সর্বাধিক পঠিত
আজকের ভিউ
পুরোন সংখ্যা
Click Here
সম্পাদক - আলতামাশ কবির । ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক - খন্দকার মুনীরুজ্জামান । ব্যবস্থাপনা সম্পাদক - কাশেম হুমায়ুন ।
সম্পাদক কর্তৃক দি সংবাদ লিমিটেড -এর পক্ষে ৮৭, বিজয়নগর, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং প্রকাশিত।
কার্যালয় : ৩৬, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০। ফোন : ৯৫৬৭৫৫৭, ৯৫৫৭৩৯১। কমার্শিয়াল ম্যানেজার : ৭১৭০৭৩৮
ফ্যাক্স : ৯৫৫৮৯০০ । ই-মেইল : sangbaddesk@gmail.com
Copyright thedailysangbad © 2017 Developed By : orangebd.com.
close